July 10, 2020

MIRROR NEWS

re-flexion of truth

করোনা চিকিৎসায় ডেক্সামেথাসন ব্যবহারের নির্দেশ স্বাস্থমন্ত্রকের


অনিকেত দেবনাথঃ  ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৫ লক্ষ ১০ হাজারের কাছাকাছি । স্বাস্থমন্ত্রকের দেওয়া শনিবারের রিপোর্ট অনুসারে ভারতে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ১,৮,০০০ । এই পরিস্থিতে ভারতীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক এবার করোনা চিকিৎসার ক্ষেত্রে ‘ডেক্সামেথাসন’ ব্যবহার করার নির্দেশ দিল।

উল্লেখ্য, অক্সফোর্ডের গবেষকেরা মৃতপ্রায় করোনা আক্রান্ত বেশকিছু রোগীর শরীরে এই ওষুধ প্রয়োগ করে । এর পরেই সেই প্রত্যেক রোগী ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে ওঠে ।

এমনকি অক্সফোর্ডের গবেষকরা ভেন্টিলেটর এবং অক্সিজেন নেওয়া রোগীদের ওপরও এই ওষুধ প্রয়োগ করে । এই ওষুধের প্রভাবে তারাও ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠেছেন । অতএব, এখন এতেই করোনা চিকিৎসার নতুন দিশা দেখছেন গবেষকেরা।

এই ওষুধ নিয়ে উচ্ছাস প্রকাশ করেছে ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা’ (WHO)। WHO এর ডিরেক্টর জেনারেল ডেটরস আধানম গিব্রেসিয়াস জানিয়েছেন, “এই সাফল্যের জন্য ব্রিটেনের গবেষকদের সাধুবাদ জানাই । ‘ডেক্সামেথাসোন’ এর প্রভাবে যেভাবে মৃতপ্রায় করোনা রোগীরা সুস্থ হয়ে উঠেছে তা অত্যন্ত বড় সাফল্যের ইঙ্গিত করছে। এর জন্য ব্রিটেন সরকারের ও সাধুবাদ প্রাপ্য”।

প্রসঙ্গত, ‘ডেক্সামেথাসোন’ আসলে একটি স্টেরয়েড জাতীয় ওষুধ। যা চর্ম রোগ বা অ্যালার্জি এবং পেটের রোগের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয় । অটো ইমিউন ডিসঅর্ডার , বাতের ব্যাথা এবং মাইস্থেনিয়া গ্রাফিস জাতিয় রোগেও হয় এড় ব্যবহার। শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে এই ওষুধ ।

কিন্তু বেশ কিছু পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া আছে এই ওষুধ। এর ফলে হতে পারে উচ্চ রক্তচাপ ও মানসিক অবসাদের মতো রোগ। তাই ডাক্তাররা খুব সীমিত ভাবে এই ওষুধ ব্যবহার করে থাকে ।

তবে করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক হিসাবে খুব ভালো কাজ করেছে এই ওষুধ । তাই এবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক এই ওষুধের প্রয়োগ করতে চাইছে ভারতে করোনা আক্রান্ত রোগীর ওপর ।

এই বিষয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, “বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়েই ভারতে এই ওষুধ চালু করা হল । রোগীর স্বাস্থ্য বুঝে ডাক্তাররা ‘মেথিল্প্রেডনিসোন’ এর পরিবর্তে এই ওষুধ ব্যাবহার করতে পারবেন”।

PAYTM

GOOGLE PAY