July 10, 2020

MIRROR NEWS

re-flexion of truth

ওয়েব প্ল্যার্টফর্মেও নেপোটিসমের শিকার অভিনেতারা


অনিকেত দেবনাথঃ ওয়েব প্ল্যার্টফর্মেও চলছে নেপোটিসম।এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ করলেন অভিনেতা কুনাল খেমু ও বিদ্যুৎ জামওয়ালের।

লকডাউনের জেরে দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ রয়েছে সিনেমা হল গুলি। সম্প্রতি ‘আনলক-১’ এ কিছু কিছু সিনেমার কাজ শুরু হয়েছে। কিন্তু সিনেমা হল গুলি কবে খুলবে তার ঠিক নেই। খোলার পর এই হল গুলিতে আদৌও লোক হবে কিনা তাও জানা নেই।

তাই ছবি নির্মাতারা তাদের যেই ছবি গুলি তৈরি হয়ে পড়ে রয়েছে সেগুলিকে অনলাইন বা ওটিটি প্ল্যার্টফর্মে রিলিজের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ইতিমধ্যেই ওয়েব প্ল্যার্টফর্মে রিলিজ হয়েছে অমিতাভ বচ্চন ও আয়ুষ্মান খুরানার ছবি ‘গুলাবো সিতাবো’। তা প্রশংসিতও হয়েছে দর্শক মহলে।

কিন্তু ওয়েব প্ল্যার্টফর্মেও ছবি রিলিজে চলছে স্বজনপোষণ। এমনটাই অভিযোগ উঠছে ডিজনি হটস্টারের বিরুদ্ধে।

ডিজনি হটস্টারে মোট ৭ টি সিনেমা রিলিজের সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্মাতারা। তালিকায় রয়েছে করণ জোহর, আলিয়া ভাট, অক্ষয় কুমার, অজয় দেবগণ, বরুণ ধাওয়ান, অভিষেক বচ্চন, বিদ্যুৎ জামওয়াল, কুণাল খেমু ও সুশান্ত সিং রাজপুতের শেষ সিনেমা।

রীতিমত পোষ্টার ছাপিয়ে ডিজিটাল মাধ্যমে তার প্রচার চলছে। ছবিগুলির প্রিমিয়ারের আগে একটা লাইভ সেশনেও আসবেন তারকারা।

কিন্তু পোস্টারে বাকি তাড়কাদের ছবি থাকলেও বাদ পড়েছে বিদ্যুৎ, কুণাল এবং সুশান্ত। পোস্টার তো দূরে থাক অর্ধেক লোক বিদ্যুৎ ও কুণালের ছবির নামই জানেননা। তাদের ছবির প্রচারই করা হচ্ছেনা।

অথচ, দুই তাড়কারই জনপ্রিয়তা কম নয়। দুই অভিনেতাই অভিযোগ করেছে্‌ ওই প্রিমিয়ার বা লাইভে উপস্থিত থাকার কোনো নিমন্ত্রণই পাননি তারা।

অন্যদিকে, সুশান্ত সিং রাজপুতের মর্মান্তিক এমন পরিণতি না হলে হয়তো তাঁর ছবির নামও কেউ জানতে পারত না। তিনি আর নেই তাই তাকে নিমন্ত্রণ করারও কোনও ব্যাপার নেই।

তবে সুশান্ত বেঁচে থাকলেও তাকে কতটা সম্মান দেওয়া হত তা নিয়েও উঠেছে প্রশ্ন। উদাহরণ তো দেখাই যাচ্ছে বিদ্যুৎ ও কুণালের ক্ষেত্রে।

সুশান্তের মৃত্যুর পর গোটা বলিউডে স্বজনপোষণের উঠেছে অভিযোগ । গত দুই সপ্তাহে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে সর্বত্র। কিন্তু তারপরও অনলাইন রিলিজের ক্ষেত্রে পোস্টারে সুশান্তের নাম নেই। নেই তাঁর ছবির নামও।

প্রশ্ন উঠেছে বলিউড কি তাহলে শোধরায়নি; এখনও কি বলিউডের অন্দরে চলছে স্বজনপোষণ।

PAYTM

GOOGLE PAY