October 26, 2020

ঘোড়ার গাড়িতে জর্জের কালো কফিন


শয়ে শয়ে মানুষ তখন চিতকার করছেন আমার শ্বাস বন্ধ হয়ে আসছে। আমার গলা থেকে হাটু সরাও। সামনে এগিয়ে চলেছে একটা ঘোরার গাড়ি।

কচোয়ান টেনে নিয়ে যাচ্ছে আজকের দুনিয়ার সব থেকে জঘন্য অত্যাচারের একটা কালো লাশকে। তিনি জর্জ ফ্লয়েড। মাটিতে মিশে যাবে সে আর কয়েক মুহুর্তে।

শুধু সারা দুনিয়া জেগে থাকবে আর মনে করবে কালোর ওপরে সাদার আজও অত্যাচারের নির্ম্মম ভিডিও ফুটেজ।

প্রায় দু’সপ্তাহের পর মংগলবার জর্জ কে কফিনে মুড়ে সমাধিতে নিয়ে যাওয়া হল। কয়েকশো স্থানীয় মানুষ শুধু জর্জ বলে গলা চিড়ে ফেললেন তাই নয়, তামাম দুনিয়ার কাছে প্রশ্ন তুললেন কালো মানুষের ওপর এত ঘৃনা কেন এখনো?

জর্জের কফিন বয়ে নিয়ে যাওয়া ঘোড়ার গাড়িটার পিছনে তখন লম্বা গাড়ি আর বাসের সারি। শেষবারের মতোন তাকে বিদায় জানাতে কালো গাল বেয়ে গড়িয়ে পড়ছে মুক্তোর দানা। ঈশ্বর কি দেখতে পেলেন!

তবে জানা গেছে হোস্টনের মেয়র সিলভাস্টর টার্নার সমাধির সামনে দাড়িয়ে নাকি বলেছেন, অন্ত্বেষ্টি কাজ সেড়ে ফিরে গিয়ে সিটি পুলিশ যাতে আর কাউকেই পিছমোড়া করে না হ্যান্ডকাফ পড়াতে পারে, তার ওপর নিষেধাজ্ঞা জাড়ির ফরমানে সই করবেন।

PAYTM

GOOGLE PAY