March 3, 2021

বিজেপি মিছিলে হামলায় রাজ্যপালের দ্বারস্থ মুকুল

রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন কড়া নাড়ছে।

এমত অবস্থায় রাজ্যে বাড়ছে রাজনৈতিক দ্বন্দ।

এই পরিস্থিতিতে বিজেপির তরফ থেকে বারংবার রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা ও প্রশাসনিক ব্যবস্থার ওপর প্রশ্ন তোলা হয়েছে।

এইবার ফের বিজেপি মিছিলে হামলার ঘটনায় রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা বিষয়ে সরব হল বিজেপি।

সোমবার টালিগঞ্জে বিজেপি মিছিলে হামলার অভিযোগে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির বিষয়ে রাজ্যপালের দ্বারস্থ হলেন মুকুল রায়।

সোমবারে দিলীপ শুভেন্দু মিছিলে হামলায় তৃণমূলের হাত রয়েছে বলে প্রথম থেকেই দাবি করে আসছে বিজেপি।

এইবিষয়ে শুভেন্দু অধিকারি তাঁর নিজস্ব ট্যুইটার অ্যাকাউন্টে ভিডিও ও পোস্ট করেছেন।

এছাড়াও মিছিলের ছাড়পত্র থাকালেও পুলিশ কেন নিরাপত্তা দিতে অক্ষম সেই বিষয়েও প্রশ্ন তোলা হয়েছে বিজেপির তরফ থেকে।

অপরদিকে মঙ্গলবারই রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা বিষয়ে প্রশ্ন নিয়ে রাজভবনে হাজির হন মুকুল রায়।

দীর্ঘক্ষণ রাজ্যপাল জগদীপ ধনকরের সঙ্গে বৈঠকও করেন তিনি।

রাজ্যপালের কাছে রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা ধসে পরার বিষয়ে অভিযোগও করেন মুকুল রায়।

রাজ্যপালের সঙ্গে বৈঠকের পরেই রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসনের বিষয়ে ফের নিজ মত প্রকাশ করেন মুকুল রায়।

তিনি জানান, রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা ভেঙ্গে পরছে।

বিজেপি নেতা মন্ত্রীদের ওপর বারংবার হামলা হচ্ছে।

এমত অবস্থায় রাজ্যে ৩৬৫ ধারা জারি করা ছাড়া অন্য কোনও উপায় দেখছেননা বিজেপি সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি মুকুল রায়।

এই বিষয় নিয়ে বুধবার নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হওয়ার কথাও জানিয়েছেন মুকুল রায়।

উল্লেখ্য, ঘটনার সূত্রপাত ঘটে সোমবার বিকেলে টালিগঞ্জে দিলীপ ঘোষ ও শুভেন্দু অধিকারির নেতৃত্বে বিজেপির মিছিল ঘিরে।

বিজেপি কর্মীদের ওপর ছোড়া হয় ইট পাটকেল।

তৎক্ষণাৎ রণক্ষেত্রে পরিণত হয় এলাকা।

বিজেপির অভিযোগ, টালিগঞ্জের চারু মার্কেট থানা এলাকায় দলীয় পতাকা হাতে বিজপি সমর্থকদের ওপর হামলা চালায় তৃণমূল কর্মী সমর্থকরা।

এইদিন বিজেপির দুই উচ্চ নেতৃত্ব শুভেন্দু অধিকারি ও দিলীপ ঘোষের নেতৃত্বে টালিগঞ্জ থেকে রাসবিহারী পর্যন্ত মিছিলের শুরু করে বিজেপি সমর্থকরা।

মিছিলে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরিও।

দুপুর ৩ টে নাগাদ প্রিন্স আনওয়ার শাহ রোডের মোড় থেকে শুরু হয় মিছিল।

বিজেপির অভিযোগ মিছিল কিছুদূর এগোতেই বিজেপি কর্মীদের লক্ষ করে তৃণমূল কর্মীরা মিছিলের বিরোধিতা করতে শুরু করে।

তারপরেই বিজেপি কর্মীদের ওপর ইট ছুঁড়তে শুরু করে তৃণমূল কর্মীরা।

তবে সংখ্যায় কম থাকায় তারপরেই পালিয়ে যায় তারা।

তবে মিছিল থেকে বেড়িয়ে তাদের তাড়া করে একদল বিজেপি কর্মী।

উল্লেখ্য, ঘটনায় বিজেপির দিকেই পাল্টা আঙুল তুলেছে তৃণমূল।

তৃণমূলের অভিযোগ বিজেপির কর্মী সমর্থকরাই প্রথমে হামলা করে তাদের ওপর।

অপরদিকে,  বিজেপির পক্ষ থেকে ফের পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার দাবি তোলা হয়েছে।

বিজেপি জানায়, তাদের কাছে মিছিলের অনুমতি ছিল।

তারপরেও তাদের ওপর হামলার প্রতিরোধ পুলিশ কেন করতে পারেনি তানিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে বিজেপির পক্ষ থেকে।