April 16, 2021

রাজনৈতিক দলগুলির ওপর ক্ষোভ বাড়ছে যৌনকর্মীদের

একুশের বিধানসভা ভোট নিয়ে মন্তব্য রাখছে পুরো ভারত।

সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে নেতা মন্ত্রীদের কথোপকথনে রয়েছে ভোটের গল্প।

চা দোকানের আড্ডা থেকে শুরু করে পরিবারের আড্ডা, মিশে রয়েছে রাজনৈতিক মতামত।

দেশের কল্যাণ, রাজ্যের উন্নতি নিয়ে নিজেদের উদ্যোগ জানিয়েছে রাজনৈতিক দলেরা।

কিন্তু কোথাও যেন বাদ রয়ে গেছে নিষিদ্ধ পল্লীর গল্প।

সেই নিয়েই ক্ষোভ প্রকাশ করল কলকাতার সোনাগাছির যৌন কর্মীরা।

তারা জানায়,

কোনও রাজনৈতিক দল তাদের কথা ভাবেছে না, তারা কোনও সাহায্যের হাট পাচ্ছে না দলেদের কাছ থেকে।

তাদের পরিবারের খরচ আর পাঁচটা মানুষদের মতোই,

জিনিসের দাম বাড়ছে তাই তাদের পক্ষেও জীবন কাটানো অত্যন্ত কষ্টের হয়ে পড়েছে বলে জানায় তারা।

রাজনৈতিক দলেদের কাছে সাহায্য চাইলেও পায় না তারা।

কিন্তু ভোটের সময় ভোট নেওয়ার জন্য ঠিক এসে পড়ে দল কিন্তু সাহায্য করাটা ভুলে যায় তারা বলে আত্মপ্রাকাশ করেন তারা।

উল্লেখ্য,

তারা জানায়, এই করোনা মহামারীতে যখন লকডাউন হয় তখনো খুব অল্প মাত্রায় রেশন পায় তারা।

ভারত যখন বিনামূল্যে রেশন পায়,ওরা সবায় সেই সুবিধা পায়নি তখন।

তারা জানায়,

সোনাগাছির বাসিন্দা প্রায় বারো হাজার কিন্তু রেশনের লিস্টে নাম লিখে নিয়ে যায় ছয় হাজার মানুষের।

খুবই শোচনীয় অবস্থায় দিন কাটে তাদের বলে জানায় তারা।

ক্ষুব্ধ হয়ে তারা বলে, নিজেদের দরকারে আসে ওরা কিন্তু আমাদের দরকারের সময় চলে যায় তারা।

উল্লেখ্য, সোনাগাছি এশিয়া মহাদেশের সবথেকে বড়ো রেড-লাইট এলাকা।