May 8, 2021

করোনা ভয়াবহতায় ১৮থেকেই প্রতিষেধক

ক্রমশই ভয়াবহ হয়ে উঠছে দেশের করোনা পরিস্থিতি।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার পর দৈনিক সংক্রমণ এবং দৈনিক মৃত্যু প্রায় প্রত্যেকদিনই আগের পরিসংখ্যাণকে ছাপিয়ে নতুন রেকর্ড তৈরী করছে।

প্রতিদিন প্রায় পৌনে তিন লক্ষ মানুষ সংক্রমিত হচ্ছেন এবং দৈনিক মৃত ১৭০০এরও বেশি।মঙ্গলবার দেশে নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ২লক্ষ৫৯হাজার১৭০জন।

এর ফলে দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১কোটি ৫৩লক্ষ ৮৯ হাজার জন।

গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৭৬১ জনের।দেশে মোট মৃত্যু ১ লক্ষ ৮০ হাজার ৫৩০।

রোগী বৃদ্ধির জেরে হাসপাতাল ও নার্সিংহোমে শয্যা প্রায় নেই বললেই চলে।

মর্গে,শ্মশানে দেহের স্তুপ পড়ে থাকতে দেখা গেছে।

বোর্ডের পরীক্ষা বাতিলের পাশাপাশি বন্ধ হয়েছে স্কুল।

বেশ কিছু রাজ্যে নাইট কার্ফু জারি করা হয়েছে।

দিল্লীতে কয়েকদিন সম্পূর্ণ  লকডাউন ঘোষণা করেছে কেজরিসরকার।

সবচেয়ে ভয়ানক অবস্থা মহারাষ্ট্র,মধ্যপ্রদেশ,রাজস্থান,ছত্তিশগড়ে।বঙ্গে ক্রমশ আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে।

দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যাও বৃদ্ধি পাচ্ছে।বিধানসভা ভোটের জেরে অবস্থা দিন দিন সঙ্গীন হয়ে উঠছে।

বাংলায় ইতিমধ্যে রাজনৈতিক দলগুলি সভা বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।ভোটে দুজন প্রার্থীর মৃত্যুর জন্য দুটি জায়গায় ভোট গ্রহন পিছিয়ে গেছে।

দেশ জুড়ে করোনা প্রতিষেধকের ঘাটতি দেখা দিয়েছে।এই নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জরুরি  বৈঠক করেন।

আগামি পয়লা মে থেকে ১৮বছর থেকেই প্রতিষেধক  নেওয়া যাবে বলে ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার।

তবে এক্ষেত্রে প্রতিষেধক বিক্রি হবে বাজার দরে।রাজ্যগুলি সরাসরি উৎপাদক সংস্থাগুলি থেকে সরাসরি প্রতিষেধক কিনতে পারবে এবং সংস্থাগুলিও এখন থেকে ৫০শতাংশ উৎপাদন রাজ্যগুলিকে বিক্রি করতে পারবে।

৪৫বছরের ঊর্দ্ধের ব্যক্তি,স্বাস্থ্যকর্মী ও ফ্রন্টলাইন কর্মীদের আগের মতোই প্রতিষেধক জোগাবে কেন্দ্র।

বঙ্গে আক্রান্ত ৬,৬্‌৩৫৩জন।

সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৫৩,৪১৮জন।

২৪ঘন্টায় আক্রান্ত ৮৪২৬জন।

২৪ঘন্টায় সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪৬০৮জন।

গত২৪ঘন্টায় মৃত্যু হয়েছে ৩৮জনের।

এপর্যন্ত  বঙ্গে মোট মৃতের সংখ্যা ১০,৬০৬জন। কো-মর্বিডিটির কারণে মৃত ৮৮৫৮জন।