Home FEATURE দেখার গল্প (সপ্তম পর্ব)।রেকর্ডে সবচেয়ে বড় নাশকতা। ৭৬ জন জওয়ানকে গুলিতে ঝাঁঝরা

দেখার গল্প (সপ্তম পর্ব)।রেকর্ডে সবচেয়ে বড় নাশকতা। ৭৬ জন জওয়ানকে গুলিতে ঝাঁঝরা

9
0

সঞ্জয় সিং
সমীপেষু
দান্তেওয়ারা
ছত্তিশগড়

নিশ্চয় আপনি এতদিনে রায়পুরে বড় পদে আছেন। হয় পারে অবসরের মুখোমুখি। এতদিনে নিশ্চয় পুলিশ সুপার হয়েছেন,বা অন্য কিছু। এতদিন পরে আপনার আমাকে মনে নেই। দেখা হলে একটু পুরনো রেফারেন্সে ঝালিয়ে নিতাম।
সেদিন আপনার সাহায্য না পেলে,ফাইলটা দেখাই হত না। শুধু শুধু দুপুর নষ্ট হত দান্তেওয়ারা থানায় বসে!
এখনো পর্যন্ত ছত্তিশগড়ের মাওবাদী হানার রেকর্ডে সবচেয়ে বড় নাশকতা। ৭৬ জন জওয়ানকে গুলিতে ঝাঁঝরা করে খুন।
২০১০,৬ এপ্রিল। তীব্র গরমে সারারাত বাসে করে দান্তেওয়ারা যাই। দিনভয় লাশ আর লাশ। লুট। গোয়েন্দা ব্যর্থতার সেরা নজির। মনে আছে,৭৬ লাশ সারি দিয়ে রাখা। এমাথা ওমাথা হাঁটছি। আর হাসপাতালে আহতদের আর্তনাদ। চিন্তলনাড় জঙ্গলে,ঘিরে ধরে কুকুরের মত গুলি চালিয়েছিল মাওবাদীরা।
কী ক্ষতি হল? দান্তেওয়ারা থানার বাইরে দাড়িয়ে। আইজি,ডিআইজি,থেকে শুরু করে গিজগিজ করছে পদস্থ পুলিশ। ৬০০ কিলোমিটার দূরে রায়পুর হেডকোয়ার্টার তটস্থ…
সারা দেশ কাঁপছে।

আমার সঙ্গে আপনার আলাপ, যেখান থেকে আর ঢুকতে দেওয়া হচ্ছিল না,কাউকে। আপ,পাগল হো?
আভিভি গোলিবারি চল রহা হ্যায়।
প্রায় পাগল হতেই যাচ্ছিলাম। চোখের ইশারায় বললেন,বাদ মে ফোন কিজিয়ে।
দূর, ছটার মধ্যে কপি পাঠাতে হবে। দেরি করলে হয়!

বিকেল গড়িয়ে যাওয়ার পর থানার ভেতরে,দূরে বসতে বললেন। তারপর আধঘন্টা বাদে নিজেই এসে নিয়ে গেলেন,রেকর্ড রুমের কাছে। একজন মহিলা অফিসারকে বললেন,ফাইলটা দিন।
নিন,ছবি তুলবেন না । টুকে নিন তথ্য।
একে ফর্টি সেভেন ২২, সেল্ফ লোডিং রাইফেল ৩০, কার্বাইন ১০, গুলি ২ হাজার রাউন্ড,৬টা ওয়াকিটকি…
আরে তাড়াতাড়ি লিখুন। আমার চাকরি যাবে..
সব লুটে নিয়ে গেছে মাওবাদীরা..

সন্ধ্যের পর একটা ফোন। কপি হয়েছে!
ভাল থাকবেন। গেলেই দেখা করছি.. সঞ্জয় স্পিকিং…এখনো কানে লেগে আছে।

– সব্যসাচী সরকার

চলবে…

Previous article৩০বছরেও কমেনি প্রেম।সেবায় মজে কিডস সেন্টার
Next articleঅনুতপ্ত কলমচিকে।