Home GADGET আসলে কি এই চাঞ্চল্যকর প্রুযুক্তি pegasus

আসলে কি এই চাঞ্চল্যকর প্রুযুক্তি pegasus

5
0

              আরো একবার শিরোনামে পেগাসাস। দ্য ওয়াশিংটন পোস্ট এবং আরো  ১৬ টি  গণমাধ্যমের সমীক্ষা ও  তদন্তে উঠে আসা  একটি

যৌথ প্রতিবেদনে প্রকাশিত হয়েছে যে সাম্প্রতিক সময় তে পেগাসাস সাংবাদিক, মানবাধিকারকর্মী এবং প্রভাবশালী

ব্যবসায়ী দের উপর গুপ্তচরবৃত্তির জন্য ব্যবহৃত software ।

 

ইতিমধ্যেই এই স্পাইওয়্যার দিয়ে ভারত থেকে কমপক্ষে ৪০ সাংবাদিকের স্মার্টফোনকে টার্গেট করা হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে এই প্রতিবেদনে ।

শুধু তাই নয় দু জন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী , বিরোধি দলের নেতারাও কয়েকজন যে পেগাসাসের শিকার , এমন তথ্য ই সামনে আসছে। 

 

পেগাসাস স্পাইওয়্যারটি ইস্রায়েলের একটি  নজরদারি প্রযুক্তি সংস্থা এন.এস.ও গ্রুপ এর তৈরি করা।  এটি কিউ সাইবার  টেকনোলজিস নামেও

পরিচিত। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য এনএসও গ্রুপ ২০০৯ সালে ইস্রায়েলে একটি বিশেষ নজরদারি প্রযুক্তি প্রস্তুতকারক হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।

 

এনএসও গ্রুপ কেবল অনুমোদিত সরকারের সঙ্গে  কাজ করার দাবি করেছে।  বর্তমানে পেগাসাস প্রকাশ্যে মেক্সিকো এবং পানামা সরকার

এমন প্রযুক্তি ব্যবহার করছে বলে জানা যায়।  

 

 তবে বিশেষজ্ঞ্ররা  বলছেন, পেগাসাস  এমন কোনও  সাধারণ স্পাইওয়্যার নয় যা আপনি অনলাইনে সহজেই পেয়ে যাবেন

আর ব্যক্তিগত ভাবে কাজেও লাগিয়ে ফেলবেন  ।

 

 পেগাসাস হল এটির সুপরিচিত গুপ্তচরবৃত্তি  করার  একটা  প্রোগ্রাম। তবে পেগাসাস একমাত্র পণ্য নয়  যা এই  সংস্থা বিক্রি করে ।

এনএসও হল একটি প্রযুক্তি আবিষ্কারি সংস্থা।এনএসও ড্রোন প্রতিরোধক টেকনোলজিও সারা বিশ্বে সুপরিচিত ।

 

এছাড়াও  ৪০ টি দেশে ৬০ এর কাছাকাছি গ্রাহক আছে এই প্রযুক্তির । সংস্থাটি বলেছে যে এর ব্যবহারকারীর  ভেতর ৫১% গোয়েন্দা সংস্থা, ৩৮%

আইন প্রয়োগকারী সংস্থা এবং ১১% সামরিক বাহিনীর অন্তর্ভুক্ত।

 

সংস্থার ওয়েবসাইটে লেখা আছে যে , “এনএসও গ্রুপ সরকারী সংস্থাগুলিকে স্থানীয় ও বৈশ্বিক বিপদের সম্ভাবনা কে শনাক্ত করতে এবং প্রতিরোধে

সহায়তা করতে সেরা শ্রেণীর প্রযুক্তি তৈরী করে। আমাদের পণ্যগুলি সরকারী গোয়েন্দা সংস্থা এবং আইন-প্রয়োগকারী

সংস্থাগুলিকে সন্ত্রাস ও অপরাধ প্রতিরোধ এ তে  তদন্ত করতে সাহায্য করে ।”

 

এনএসও গ্রুপ এর ওয়েবসাইট অনুযায়ী , পেগাসাস কোনও গণ  নজরদারির  প্রযুক্তি নয়। সংস্থাটির ওয়েবসাইট এ তে স্বচ্ছতা ও দায়িত্ব প্রতিবেদন

বিভাগ এ বলা আছে যে  , “এটি কেবল সুনির্দিষ্ট ব্যক্তির মোবাইল ডিভাইস থেকে ডেটা সংগ্রহ করে, যাদের গুরুতর অপরাধ ও

সন্ত্রাসের সাথে জড়িত বলে সন্দেহ করে তাদের দেশের  সরকার ।” 

 

তবে এই পেগাসাস কে পরিচালনার দায়িত্ব পুরোপুরি ভাবে গ্রাহক সরকারের।

তাই তারা যদি চায় তাহলে এই প্রযুক্তি কে গণ নজরদারির হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করতেই পারে।

Previous articleগোদি না আবেগ! ধুন্দুমার লড়াইয়ে ইস্টবেঙ্গল ক্লাব
Next articleআয়কর হানা সর্ব ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে