Home HEADLINE STORY চরম খাদ্যসংকট, মৃত্যুমুখে শিশুরা

চরম খাদ্যসংকট, মৃত্যুমুখে শিশুরা

79
0

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তার সৈন্য প্রত্যাহার করার পরই   আফগানিস্তান এক গুরুতর মানবিক সংকটের মুখোমুখি হতে শুরু করেছে।

চরম খাদ্য সংকটের সম্মুখীন হচ্ছেন আফগানিস্তানের সাধারণ মানুষ।

এই পরিস্থিতিতে আফগানি নারীরা তাদের সন্তানদের  নিয়ে চিন্তায় এবং কষ্টে ভেঙ্গে পড়েছেন।

ক্ষুদা, ক্লান্তি আর নৈরাশ্য ঘিরে ধরছে তাদের ।

এই চরম দুর্ভোগের কথা বলতে গিয়ে এক 35 বছর বয়সী আফগানি নারী জারঘুনা জানাচ্ছেন

“আমি এবং আমার স্বামী ক্ষুধার্ত থাকতে পারি, কিন্তু আমরা চিন্তিত কারণ আমাদের বাচ্চারা ক্ষুধার্ত হয়ে কান্নাকাটি করছে।”

দুই সন্তানের মা জারঘুনা, বলছেন তারা সত্যি  ভালো নেই।

আমার আট বছরের ছেলেও সংকটের প্রভাব অনুভব করতে শুরু করেছে।

তিনি ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউকেকে জানিয়েছেন তারা শুধু মাত্র রাতের খাবার টুকুই খেতে পারেন।

কখনো  তাও থাকে না, তখন  কিছু না খেয়েই ঘুমাতে যেতে হয় তাদের । আর  সকালে শুধু চা পান। দুবেলা ঠিকমত খাবার জোটে না।

আরো কষ্টের , জারঘোনা জানাচ্ছেন, তার  পরিবার এখন কাঁচা আটা খাওয়া শুরু করেছে।

কারণ সবকিছুর দাম অস্বাভাবিক বেড়ে গেছে। আটা – তেল কেনার পরিস্থিতি টুকুও নেই।

সংকট এতটাই গুরুতর যে খাবারের দাম বেড়ে যাওয়ায় পরিবার গুলি 1 থেকে 15 বছর বয়সী শিশুদের নিয়ে প্রতিদিন মাত্র একটি খাবার কিনতে সক্ষম হচ্ছে।

এর আগেই , অবশ্য  জাতিসংঘ সতর্ক করেছিল যে,

আফগানিস্তানকে ধ্বংসের থেকে ফিরিয়ে আনতে জরুরি পদক্ষেপ না নিলে ,

শিশুসহ লাখ লাখ আফগান অনাহারে মারা যেতে পারে।

ওয়ার্ল্ড ফুড প্রোগ্রামের (ডব্লিউএফপি) নির্বাহী পরিচালক ডেভিড বিসলে জানিয়েছেন ,

আফগানিস্তানের 39 মিলিয়ন জনসংখ্যার অর্ধেকেরও বেশি তীব্র খাদ্য নিরাপত্তাহীনতার মুখোমুখি আর  “অনাহারে” ভুগছে।

অনেক আফগান খাদ্য কেনার জন্য সম্পত্তি বিক্রি করছে।

তালিবান সরকারী কর্মচারীদের মজুরি দিতে অক্ষম।

এবং শহুরে সম্প্রদায়গুলি প্রথমবারের মতো গ্রামীণ এলাকার মতো স্তরে খাদ্য নিরাপত্তাহীনতার সম্মুখীন হচ্ছে।

Previous articleনির্বাচন শুরু ত্রিপুরায়
Next articleসাত সকালেই কাঁপল কলকাতা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here