Home HEADLINE STORY হাইকোর্টের চরম ভৎর্সনা নির্বাচন কমিশনকে

হাইকোর্টের চরম ভৎর্সনা নির্বাচন কমিশনকে

8
0

ভোট পরিচালনা নিয়ে হাইকোর্টের চরম ভর্ৎসনা নির্বাচন কমিশনকে।

কোভিডে রাজনৈতিক দলগুলির প্রচার নিয়ে কমিশনের ভূমিকা সন্তোষজনক নয়,

এমনটাই পর্যবেক্ষণ আদালতের।

যে রাজ্যে দৈনিক সংক্রমণ ১০ হাজার পার করে যাচ্ছে,

সে রাজ্যে কী ভাবে রাজনৈতিক দলগুলি হাজার হাজার লোকজন জড়ো করে ভোট প্রচার করছে তা নিয়ে কার্যত হতবাক ।

‘করোনাকালে ভোট পরিচালনায় অদক্ষতার পরিচয় দিয়েছে কমিশন’- কার্যত এই ভাবেই ভর্ৎসনা করলেন রাজ্যের উচ্চ আদালত।

এদিন হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি টিবিএন রাধাকৃষ্ণণের ডিভিশন বেঞ্চ বলে,

করোনা মহামারির মধ্যে এই ভাবে শুধুমাত্র সার্কুলার দিয়ে নিজের দায় ঝেড়ে ফেলতে পারে না কমিশন।

করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ভোটপ্রচারে রাশ টানা হোক-

এই আর্জি জানিয়েই সম্প্রতি হাইকোর্টে তিনজন জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন।

তারই শুনানি চলাকালীন বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ চরম অসন্তোষ প্রকাশ করেছে কমিশনের উপর।

আদালত জানিয়েছে,

নির্বাচন কমিশনের হাতে অসীম ক্ষমতা দেওয়া রয়েছে।

কিন্তু সেই ক্ষমতা কার্যক্ষেত্রে প্রয়োগ করছে না তারা।

কমিশনের আধিকারিক ও কুইক রেসপন্স টিমকে কাজে লাগানো হচ্ছে না।

শুধুমাত্র সার্কুলার জারি করে নিজের দায় সারছে কমিশন।

এভাবে মানুষের ওপর সব কিছু ছেড়ে দিয়ে নিজের দায় ঝেড়ে ফেলতে পারে না কমিশন।

প্রধান বিচারপতি আরও বলেছেন,

প্রাক্তন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার টিএন সেশনের ১০ শতাংশ কাজ এই নির্বাচন কমিশন করতে পারবে কি না আমার সন্দেহ।

প্রয়োজনে তারা সেশনের কাজ করবেন।

কমিশন চূড়ান্ত অদক্ষতার প্রমাণ দিয়েছে।

আদালতে কোনও রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধি না থাকায় এখনই কোনও নির্দেশ জারি করছে না আদালত।

কিন্তু ভবিষ্যতে এই নিয়ে নির্দেশ জারি করতে পারে তারা।

প্রয়োজনীয় কোভিড বিধি না মানলে প্রার্থী বা তার দলের প্রতি আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

Previous articleদেশজুড়ে অক্সিজেনের ঘাটতি
Next articleবাগদায় চলল গুলি