Home AGRICULTURE শিল্প নয় , সবুজ উপহার শিল্পপতির

শিল্প নয় , সবুজ উপহার শিল্পপতির

31
0

একজন শিল্পপতি হয়ে খালি জমিতে বানালেন জঙ্গল । তৈরি করার স্বপ্ন দেখলেন জীব বৈচিত্র।

কর্ণাটকের শিভামগ্গা জেলায় এক অনুর্বর জমি  তে নিজস্ব  এক জঙ্গল তৈরি করে নজির গড়লেন

সেখানকার উদ্যোগপতি সুরেশ কুমার।

 

আজ থেকে ১০ বছর আগে এই জমি কেনেন সুরেশ।সাগর এ তে অবস্থিত এই ২১ একর এর

জমি তে তখন  কোনো  সবুজ-অরণ্য ছিলোনা বললেই চলে।

এই পক্রিয়া টি ছিল এক “green initiative model “.

 

১০ বছর আগেই সুরেশ ,স্বনামধন্য পরিবেশবিদ আখিলেশ চিপলির সাহায্যেই  শুরু করেন এমন পরিকল্পনা ।

চিপলি এখনো এই প্রজেক্ট টির মুখ। এ. এন .এই কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে চিপলি জানিয়েছেন  যে এই জঙ্গলের

নাম  ‘উষা কিরণ ‘।    সূর্যের প্রথম শিক্ষার নামেই রাখা এই জঙ্গলের নাম।

 

তিনি আরো বলেন যে আজকে যে জমি অরণ্য রূপ ধারণ করেছে তা আজ থেকে ১০ বছর আগেই ছিল এক মরুভূমি সমান।

তিনি বলেন “সুরেশ কুমার আমাকে বলেছিলো এই জমির নিয়ে কোনো সমাজ উন্নয়ন এর কাজ করতে।

আমিই এই প্রাকৃতিক জঙ্গল বানানোর পরামর্শ দি”।

 

এই জঙ্গল আজ  পশ্চিমি ঘাট এর মোটামুটি সমস্ত প্রজাতি কে স্থান দিতে সক্ষম হয়েছে।

এই সময় গাছেরা  নিজেরাই প্রাকৃতিক  ভাবে নিজেদের সংখ্যা বাড়িয়ে তুলতে পারছে।

এই জায়গা ইতিমদ্ধেই পরিবেশবিদ ও পরিবেশবিদ ছাত্রদের কেন্দ্র হয়ে উঠেছে।

 

চিপলি এও বলেন যে এই মডেল এর পরিকল্পনা খুব দরকারি পশ্চিমি ঘাট এর অরণ্য কে বাঁচিয়ে রাখতে।

এই জলবায়ু পরিবর্তন এ তে বিলুপ্ত হওয়ার পথে হেটে চলা পৃথিবীর বুকের এরকম উদ্যোগ সত্যিই মহৎ।

এই উষা কিরণই হয়তো ভবিষতে জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে মানব সভ্যতার  লড়াই এর প্রথম আলো হয়ে সামনে আসবে।

 

Previous article১৬ বছর বাদে দলবদল রামোস এর
Next articleসকালে ফের কাঁপলো দেশ , টের বঙ্গেও