Home BUSINESS মাত্র ৫০০ টাকায় শুরু করেছিলেন Insectivora

মাত্র ৫০০ টাকায় শুরু করেছিলেন Insectivora

5
0

হাতে পুঁজি বলতে ৫০০ টাকা। আর তাই দিয়েই শুরু একটু অন্য ধরনের ব্যবসা। সেদিন পরিবারের অনেকেই

হয়ত ভাবেন নি , এমন কেন ব্যবসায়ের জেদ চেপে বসেছে আদ্যোপান্ত ইংরাজী মাধ্যমে পড়া ছেলেটির ওপর।

তিনি অংশুআশিষ সেন। Insectivora  র কর্ণধার ।

আজ তাঁর তৈরি Insectivora পেস্ট কন্ট্রোল নিয়ে ব্যবসা শুরু করলেও , আজ মহীরুহ।

 

Insectivora  আজ ডাল পালা মেলেছে।  Water Proofing Treatment, Treatment in Construction / Expansion Joints with Sealant / Tape, Flooring, Grouting, Structural Repairing এর মতো একাধিক কাজে তাঁরা পারদর্শী।

 

তবে বাঙ্গালী হয়ে ব্যবসা করার মতো সাহস দেখানোর কথা তুলতেই হাস্যময় মানুষ টি বলে উঠলেন , জানেন আমাদের

পরিবারের অনেকেই কেন্দ্রীয় সরকার, রাজ্য সরকার , কিম্বা কর্পোরেট এর বড় দায়িত্বেই চাকরী করতেন । তাদের কানে খবর যেতেই

তাঁরা চমকে ওঠেন  সেদিন । অংশু ব্যবসা করবে?

এরপর কেটে গেছে অনেক গুলো বছর। স্ত্রী গুজরাতের মানুষ। ফলে ব্যবসার জন্য স্বামীর পাশে থাকাটা তিনি প্রথম থেকেই

ছিলেন। পুজির জোগাড় একটা বড় বালাই। হাতের সামান্য পুঁজি দিয়ে লড়াই শুরু করলেও অনেকটা দিন লেগেছে ব্যবসায় জোয়ার

আসতে।

 

ঘাত প্রতিঘাতে আরো দৃঢ় চেত হয়েছেন আজকের সফল ব্যবসায়ী Insectivorar কর্নধার অংশু আশিষ সেন।

 

এখানেই শেষ নয়। পাশে পেয়েছেন দুই ভাইকেও। তাদের লড়াই এ আজকের ইন্সেক্টিভোরা নতুন স্বপ্ন দেখে।

অংশু আশিষের এক ভাই  অনিন্দ্য  ক্লায়েন্টকে শেষ মেইল টা পাঠিয়েই দাদার সামনে এলেন।

 

মিরর নিউজের প্রতিনিধিদের দিকে তাকিয়ে ছুড়ে দিলেন প্রত্যয়ের হাসি। বললেন , দাদা ক্যাপ্টেন।

দাদার নেতৃত্বে আমদের প্রতিদিন জিততে অভ্যস্ত হওয়া। কে বলে বাঙ্গালী  পরিবার কে সঙ্গে নিয়ে ব্যবসা করতে পারে না !

 

তবে ব্যবসায়ে এখন প্রতিদিন ই নতুন নতুন চ্যালেঞ্জ। ম্যান পাওয়ার এর খরচ বাড়ছে। অত্যাধুনিক যেসব যন্ত্র পাতি ব্যবহার হচ্ছে তা মিললেও

আজকের দিনে তার দামও বেশি হলেও ইনভেস্ট করতে হচ্ছে। বলছিলেন অংশু বাবু।

 

এদিকে দুই ভাই কে সঙ্গে নিয়ে নিজের অদম্য ইচ্ছাশক্তিতেই আজো নতুন করে ভাবতে পারেন অংশু আশিষ সেন ।

তিনি এখন ভাবছেন ব্যবসার খানিক পরিবর্তন আনতে। এতদিন তাদের কাজ ছিল B2B  । অর্থাৎ বিভিন্ন ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ।

এখন থেকে তাঁরা এগোচ্ছেন সাধারন মানুষের সঙ্গেও ব্যবসা করবেন বলে।

 

অত্যন্ত কম খরচে , মধ্যবিত্তের নাগালের মধ্যে তাঁরা সাধারন মানুষকে পরিষেবা  দেবেন।

অত্যাধুনিক ব্যবস্থাপনায় ,  স্বল্প খরচে মধ্যবিত্তের নাগালে এখন থেকে Insectivora .

 

কি ভাবে পাবেন Insectivora কে ? ফেসবুক , ট্যুইটার , ইন্সটাগ্রামে তো থাকছেই , পাশাপাশি ইউটিউবেও তাদের কাজের ধরন ধারন

দেখবেন আপনি। দেখে খুশি হবেন , কথা বলবেন আর আপনার পাশে এসে বন্ধুত্বের হাত বাড়াবে Insectivora .

Previous articleআকস্মিক বন্যায় তছনছ ধর্মশালা
Next articleবৈষম্যের নেপথ্যে