Home HEADLINE STORY ভারত চিন সীমান্ত বৈঠকে দুই দেশের মেজর জেনারেল

ভারত চিন সীমান্ত বৈঠকে দুই দেশের মেজর জেনারেল

26
0

লাদাখ সিমান্তে চিন ও ভারতীয় সেনা মুখোমুখি হওয়ার বিষয় নিয়ে বুধবার নিস্পত্তিহীন আলোচনার পর বৃহস্পতিবার আরো একবার মুখোমুখি বসছেন দুই দেশের সেনা নায়ক ।
ভারত ও চিনের মধ্যে সংঘর্ষ নিয়ে উত্তেজনার পারদ ক্রমশই বেড়ে চলেছে । চিন সরকার এই হামলার দায় ভারতের ওপর দেওয়ার চেষ্টা করছে ক্রমাগত । ইউএসের একটি মিডিয়ায় চিন বলেছে ভারত যা করেছে তা খুবই লজ্জাজনক । ভারতের প্রধানমন্ত্রী চিনের এই অস্বাভাবিক আচারনে ক্রদ্ধ হয়ে ভারতীয় সেনাদের আত্মবলিদান বৃথা যাবেনা এরকম মন্তব্য করেন ।এরফলেই যুদ্ধের ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছিল । কিন্তু চিন প্রথমে পিছু হাটে এবং সংঘর্ষে না জড়ানোর আর্জি করে । তারপরই আজ ১০.৩০ টা থেকে বৈঠক শুরু হয় দুই দেশের সেনা নায়কের মধ্যে ।
উল্লেখ্য এই ঘটনা শুরু হয় পূর্ব লাদাখের গালওয়ান ও শাইওক নদীর মোহনার ১৪ নম্বর পেট্রলিং পয়েন্টে ভারতের রাস্তা নির্মাণ করা নিয়ে । দীর্ঘদিন ধরেই এটি ভারতীয় এলাকার অন্তর্ভুক্ত। ভারত এখানে রাস্তা নির্মাণ করে কারাকোরাম পাসের দক্ষিণে শেষ আউটপোস্ট পর্যন্ত যাতায়াতের ব্যবস্থা করেছে। তা মেনে নিতে পারেনি চিন সরকার। এই এলাকার দাবি করে ১৪ ও ১৫ নম্বর পয়েন্টে তাঁবু গেড়েছিল চিনা সেনা । তার পাল্টা হিসাবে কয়েক গজ দূরে তাঁবু গেড়েছিল ভারতীয় সেনা ।এই নিয়েই কয়েক দিন ধরে দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা তৈরি হয়েছিল। এবিষয়ে সোমবার বৈঠকেও বসে দুই দেশের সেনা অধিকারিক। অভিযোগ তারপরই চিন হঠাৎ ভারতীয়দের ওপর লোহার রড , পাথর দিয়ে হামলা করে ।ফলে ভারতের ২০ জন সেনা শহীদ হন । যোগ্য জবাব দেয় ভারতীয় সেনা তাতে তাদের ৪৩ জন সেনা নিহত হয়।
প্রসঙ্গত ১৯৬২ র যুদ্ধের সময় ভারত এর এই এলাকার কিছু সেনাপোস্ট দখল করে চিন । কিন্তু তারপর থেকে চিন জায়গা গুলি ধীরে ধীরে ছেড়ে দেয় কূটনৈতিক কারনে ।বর্তমানে তারা এই পুরো এলাকা দাবি করছে , যারফলে তাদের বাধা দিতে হচ্ছে ভারতীয় সেনাদের ।
মে এর আগে লাদাখ সীমান্ত যেমন ছিল ঠিক তেমন অবস্থায় ফেরাতে তৎপর হয়েছে ভারত । তাই যত শীঘ্র সম্ভব এই অবস্থার নিষ্পত্তি চায় ভারত সরকার ।

Previous articleভারত চিন দ্বন্দে মন্তব্য নয় ; হোয়াইট হাউস
Next articleবীরভূমের বাড়িতে শহিদের কফিন