Home DISTRICTS করোনায় মৃত তৃণমূল বিধায়ক তমোনাশ ঘোষ

করোনায় মৃত তৃণমূল বিধায়ক তমোনাশ ঘোষ

20
0


অনিকেত দেবনাথঃ  কোভিড আক্রান্ত হয়ে তৃণমূল বিধায়ক তমোনাশ ঘোষের লড়াই থামলো আজ । প্রয়াত হলেন কোভিড আক্রান্ত ফলতার তৃনমূল বিধায়ক ।বুধবার সকালে বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

তিনি ছিলেন ফলতার তিন বারের বিধায়ক ও দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ নিগমের চেয়ারম্যান । দলের কাজে গত মাসে দুর্গাপুর গিয়েছিলেন তিনি । সেখানেই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি । তড়িঘড়ি কলকাতায় ফিরে এসে ২২ মে তাঁর নমুনা পরীক্ষা করা হয়।রিপোর্টে তার করোনা পসিটিভ আসে । তাঁর দুই মেয়েও করোনায় আক্রান্ত হন। তবে তারা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে যান । কিন্তু তমোনাশ বাবুর ক্ষেত্রে আর বাড়ি ফেরা হলনা ।

শুরু থেকেই তাঁর তীব্র শ্বাসকষ্টের সমস্যা ছিল বিধায়ক মহাশয়ের । তাই হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর থেকেই তাকে ভেন্টিলেশন এ রাখা হয় । হাসপাতালের তরফ থেকে জানানো হয়েছে তমোনাশ বাবুর রক্তে সুগার ছিল মাত্রাতিরিক্ত । তা ওষুধ দিয়ে কমানো হয় । তারপর আবার তাঁর শরীরে সোডিয়ামের পরিমাণ বেড়ে যায় । তাও কমানোর চেষ্টা চালাচ্ছিল ডাক্তাররা । কিন্তু দীর্ঘদিন ভেন্টিলেশনে থাকার ফলে তাঁর গলায় সংক্রমণ ঘটে । অবশেষে শেষ রক্ষা আর করা যায়নি ।

তৃণমূলের জন্মলগ্ন থেকে দলে ছিলেন তিনি । গত সপ্তাহেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তমোনাশ বাবুর সুস্থ হয়ে ওঠা নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন । তাঁর আশঙ্কাই সত্যি হল । বুধবার তমোনাশ ঘোষের মৃত্যুর খবর পেয়ে গভীর শোক প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়।তিনি টুইট করে জানান, “ফলতার তিন বারের বিধায়ক এবং ১৯৯৮ থেকে দলের কোষাধ্যক্ষ তমোনাশ ঘোষ আজ আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন ।আমাদের সঙ্গে তিনি ৩৫ বছর ধরে ছিলেন ।সাধারণ মানুষ ও দলের প্রতি অত্যন্ত নিষ্ঠাবান ছিলেন তিনি । সামাজিক নানা কাজে তাঁর অবদান রয়েছে । তাঁর মৃত্যতে তাঁর পরিবারকে সমবেদনা জানাই আমি”।

প্রসঙ্গত,বুধবার নবান্নে সর্বদল বৈঠক হওয়ার কথা ছিল । তমোনাশ বাবুর মৃত্যর পর তা বাতিল করার সম্ভাবনা আছে।

Previous articleনবান্নে সর্বদল বৈঠক
Next articleমডেলেই নজরে! রাষ্ট্রসংঘে স্বাস্থ্যমন্ত্রী